কিভাবে ইপাব পড়বে?


ইপাব কী? কেন পড়বেন, কিভাবে পড়বেন?

‘ইপাব’ (ePUB) একটি জনপ্রিয় ফাইল ফরম্যাট। আমরা যেমন পিডিএফ ফাইল ফরম্যাটের মাধ্যমে আজ মোবাইলে বই পড়ছি, তেমনি ইপাব ফাইল ফরম্যাটের মাধ্যমে মোবাইল, ট্যবলেট কিংবা পিসিতে বই পড়া যায়। আজ পর্যন্ত যে সকল ডিভাইসে পিডিএফ বই পড়া যাচ্ছে সেই সকল ডিভাইসেই ইপাব বইও পড়া যায়। বরং অনেক ডিভাইস আছে, যেগুলোতে পিডিএফ বই পড়া যায় না কিন্তু ইপাব পড়া যায়।

১. ইপাব কী?
ইপাব হলো— ইলেকট্রনিক পাবলিকেশন। সহজ অর্থে আমরা যাকে ই-বুক বলে থাকি। যে বইগুলো ইলেকট্রনিক যন্ত্রাংশে পড়ার জন্য প্রকাশ করা হয়, সেই বইগুলোকেই ই-বুক বলে। ইপাব ছাড়াও আরও একটি বই পড়ার জয়প্রিয় ফরম্যাট হলো ‘মোবি’।

২. ইপাব পড়তে কি আলাদা সফটওয়্যার লাগে?
অবশ্যই। পিডিএফ বই পড়ার জন্য যেমন এডোবি রিডারের প্রয়োজন হয়, তেমনি ইপাব বই পড়ার জন্যও ইপাব রিডার লাগবে। ইপাব পড়ার জন্য আলাদা ডিভাইস থাকলেও যেকোনো মোবাইলে অ্যাপ ডাউনলোড করেও মোবাইলে ইপাব বই পড়া যায়।

৩. ইপাবের সুবিধা কী?
আক্ষরিক অর্থেই ইপাবের সুবিধার কোনো শেষ নেই।
# বেশিরভাগ পিডিএফ হয় স্ক্যানড পিডিএফ। অর্থাৎ বইয়ের পাতা স্ক্যান করে পিডিএফ তৈরি করা হয়। কোনো কোনো পাতায় খুঁত থাকায় স্ক্যান ভালো আসে না। তার ওপর সাইজ কমানোর জন্য সেগুলোকে কম্প্রেস করা হয়। ফলে লেখা ঝাপসা দেখা যায়, পড়তে কষ্ট হয়। কিন্তু ইপাবে সেই সমস্যা নেই। বইয়ের টেক্সট টাইপ করে ইপাব তৈরি হয় বিধায় কোনো ঝামেলা ছাড়াই পড়া যায়।
# ইপাব বই ডিভাইসের সাথে সামঞ্জস্য বজায় রাখতে পারে। অর্থাৎ বই পড়ার সময় জুম করে বই পড়তে হয় না। ডিভাইসের স্ক্রিন ছোট কিংবা বড় কোনো কিছুতেই কোনো সমস্যা হয় না।
# লেখার ফন্ট সাইজ পরিবর্তন করা যায়। ফন্টের রং পরিবর্তন করা যায়, এমনকি বইয়ের ব্যাকগ্রাউন্ড কালার পরিবর্তন করা যায়।
# যারা চোখে কম দেখেন কিংবা ছোট লেখা পড়তে সমস্যা হয়, তাদের জন্য ইপাব এক যুগান্তকারী সমাধান। বিশেষ করে যাঁরা বয়সে বৃদ্ধ কিন্তু ডিজিটাল ডিভাইসে বই পড়তে আগ্রহ আছে, তাঁদের জন্য ইপাব সত্যিই একটা অসাধারণ সমাধান।
# ইপাব খুব হালকা বলে কম জায়গায় অনেক বেশি বই রাখা যায়। এতে মেমরির অপচয় কম হয়।
# ইপাবে বইয়ের পছন্দের কোনো লাইন মার্ক করে রাখা যায়। সেটাতে কমেন্ট যুক্ত করা যায়। পরবর্তীতে শুধু মার্ক করা অংশ এক্সপোর্ট করে রাখা যায়।
# নির্দিষ্ট পাতা বুকমার্ক করে রাখা যায়।
# সার্চের মাধ্যমে খুব সহজেই বইয়ের তথ্য খুঁজে বের করা যায়।
# ডে/নাইট রিডিং মুড সুবিধা পাওয়া যায়।
# ইপাব বই থেকে লেখা কপি করা যায় এবং যেখানে খুশি সেখানে শেয়ার করা যায়।
# এছাড়াও বিভিন্ন অ্যাপস ইপাব বই পড়ে শোনাতে পারে। অর্থাৎ আলাদা কোনো অডিওবুকের দরকার হয় না।

৪. কোথা থেকে অ্যাপস ডাউনলোড করবেন?

অ্যান্ড্রয়েডের জন্য :
Android ব্যবহারকারীদের জন্য অনেকগুলো অ্যাপস আছে Playstore-এ (play.google.com)। যেমন : eReader Prestigio, Universal Book Reader, AlReader, Moon+ Reader Pro, FBReader, Lithium: EPUB Reader ইত্যাদি। এগুলোর মধ্যে যেকোনো একটি ডাউনলোড করে নিয়ে খুব সহজে ইপাব বই পড়া যায়। তবে আমাদের পরামর্শ হলো, আপনি যদি ইপাব বইয়ে কাগজের বইয়ের আবহ পেতে চান তাহলে Lithium: EPUB Reader ব্যবহার করুন। এটি খুব হালকা ও চমৎকার ফিচার সমৃদ্ধ।

Windows Phone এর জন্য :
আপনারা যারা Windows Phone ব্যবহার করছেন তারা অ্যাপস স্টোর থেকে Tucan Reader লিখে সার্চ দিন।

কম্পিউটারের জন্য :
Sumatra PDF একটি অসাধারণ পিডিএফ রিডার। এটা পিডিএফ রিডার হলেও এর সাহায্যে ePUB এবং Mobi ফাইল খুব চমৎকারভাবে পড়া যায়। নিচের লিঙ্ক থেকে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন।
এছাড়া আপনি FBReader ব্যবহার করতে পারেন। এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে আপনি ePUB ও Mobi ফাইল কম্পিউটারে পড়তে পারবেন। নিচের লিঙ্ক থেকে সংগ্রহ করুন।
উপরের সফটওয়্যার দুটো ছাড়াও Adobe Digital Editions ব্যবহার করে ইপাব পড়া যায়। তবে এক্ষেত্রে বাংলা ইপাবে বাংলা ফন্ট Embed করা থাকতে হবে। নইলে লেখা পড়া যাবে না। নিচের লিঙ্ক থেকে সংগ্রহ করুন।

Amazon Kindle Tab এর জন্য :
বর্তমানে কিন্ডেল ফায়ার Android OS এর Customized ভার্সন। ফলে এটিতে যেমন Android APK ব্যবহার করা যায়, তেমনি Amazon Store থেকেও অ্যাপস ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যায়। আপনি যদি কিন্ডেলে Android Apps ব্যবহার করতে চান তবে উপরে Android Apps তালিকা থেকে যেকোনো একটি অ্যাপের অফলাইন APK ডাউনলোড করে নিন। আর যদি Amazon থেকে ডাউনলোড করতে চান, তবে eLibrary Manager Basic এই অ্যাপটি ব্যবহার করুন।
আর আপনি যদি Kindle এর অন্যান্য ভার্সন ব্যবহার করে থাকেন তবে লাইব্রেরি থেকে বই ডাউনলোডের সময় Mobi ফাইলটি ডাউনলোড করুন। Mobi ফাইল Kindle Paperwhite কিংবা এই ধরনের অন্যান্য ডিভাইসে কোনো রকম সফটওয়্যার ছাড়াই পড়তে পারবেন। এছাড়া বই পড়ার অন্যান্য ডিভাইস যেমন : Kobo, Sony Reader, PocketBook Reader ইত্যাদি রিডারেও Mobi ফাইল কোনো রকম সফটওয়্যার ছাড়াই পড়া যাবে। ক্ষেত্র বিশেষে ডিভাইসভেদে ফন্ট নাও সাপোর্ট করতে পারে। সেক্ষেত্রে আমাদের পক্ষ থেকে করার কিছু নেই।

Apple ডিভাইসের জন্য :
iPhone কিংবা iPad এ ইপাব বই পড়ার জন্য iBooks অ্যাপ ব্যবহার করুন।

শুরু হোক আপনার ইপাব বই পড়ার পথ চলা। এই শুভ কামনায় বিদায় নিচ্ছি আমি শিশির শুভ্র। ভালো থাকবেন সবাই।

২টি মন্তব্য

হোম