বক্সার রতন - শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় (অদ্ভুতুড়ে - ০৫)




কাহিনী সংক্ষেপ : রতন বেশ গরীব ঘরের ছেলে। আয় রোজগার বলতে তার ছোট একটা চাকরি। সে চাকরিও পেয়েছে বক্সিং করার সুবাদে। হ্যাঁ, ছোট চাকুরে হওয়ার পাশাপাশি রতনের একটা বড় পরিচয়ও আছে। সে একজন বক্সার। এবং বেশ দুঁদে বক্সারই। এ বছরই সে লাইট হেভিওয়েটে জাতীয় প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। তাও এলেবেলে কাউকে হারিয়ে নয়, সুব্বার মতো শক্তিশালী ও কৌশলী বক্সারকে হারিয়ে যে কিনা অলিম্পিকে প্রায় ব্রোঞ্চ জিতে ফেলেছিল।
রতনের বাবা বাঞ্ছারাম বিরাট বিজ্ঞানী ছিলেন। তিনি নাকি তাপশক্তির বিবর্ধন নিয়ে এক যুগান্তকারী আবিষ্কার করেছিলেন। কিন্তু কীভাবে যেন এর পরেই তিনি পাগল হয়ে যান। কেউ কেউ বলে তাঁর সহকারী তাঁকে ওষুধ খাইয়ে পাগল বানিয়ে ফেলেছে। কেউ জানে না এখন সেই ফর্মুলা বা সহকারী কোথায় আছে।
এদিকে রতন কিছুদিন থেকে লক্ষ করছে দুইজন বিদেশি লোক তার প্রতিটা ফাইট দেখছে। তাদের উপস্থিতি খুব অস্বস্তিতে ফেলে রতনকে। একদিন সেই রহস্যময় দুই বিদেশি রতনের সঙ্গে দেখা করতে আসে। তারা নিজেদের পরিচয় দেয় জন ও রোলো নামে। এই দুই বিদেশির কাছেই রতন জানতে পারে তার বাবা বিজ্ঞানী বাঞ্ছারামের সেই হারিয়ে যাওয়া ফর্মুলা সম্পর্কে।
বাঞ্ছারাম পাগল হওয়ার ১২ বছর পর জন ও রোলো এসেছে রতনের কাছে। বাঞ্ছারামের ফর্মুলার প্রতি তাদের আগ্রহ। কিন্তু রতন জানে না ফর্মুলা কোথায়। বাঞ্ছারাম তাঁর যন্ত্রের কাজ শেষ করেছিলেন সেটাই কেউ নিশ্চিত করে বলতে পারে না। জন ও রোলোই বা কেমন মানুষ, শত্রু না মিত্র তাই বা কে বলবে রতনকে?
রোলো আর জন রতনকে বলে গেল সে বাড়ি ফিরলে ওরা আবার আসবে। কিন্তু রতন বাড়ি ফেরার আগেই গুম হয়ে গেল ওর বাবা বাঞ্ছারাম। অসহায় রতন আরও নিরুপায় হয়ে গেল। কীভাবে এই সব সমস্যা থেকে নিজেকে আর বাবাকে রক্ষা করবে সে? জন আর রোলোই বা কে? কোথায় গেল রতনের বাবার সেই সহকারী আর এত ঝামেলার পিছনে কারণই বা কী?
এত সব জানতে হলে পড়তে হবে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের অদ্ভুতুড়ে সিরিজের “বক্সার রতন” নামের এই বইটি।

রিভিউটি ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।


ই-বুকটি তৈরি করেছেন : শুভম


ডাউনলোড : Epub Or Mobi Or PDF


সতর্কতা : বইটি শিশু-কিশোররা পড়বে এটাই আমাদের মৌলিক উদ্দেশ্য। এখানে আমার কোনো ব্যক্তিগত কিংবা ব্যবসায়িক উদ্দেশ্য নেই। আমি শুধু চেষ্টা করেছি সবচেয়ে সহজ উপায়ে একটি বই শিশু-কিশোরদের মাঝে পৌঁছে দেওয়ার। যদি কোনো ব্যক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠান কোনো অসৎ উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে এই বইটি ডাউনলোড করে থাকেন এবং ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে প্রস্তুত ও বিপণন করে থাকেন, তবে পরবর্তীতে কপিরাইট সংক্রান্ত সমস্ত দায়ভার ডাউনলোডকারীর। কোনোভাবেই সেই দায়ভার শিশু-কিশোর.অর্গ বহন করবে না। সুতরাং বই ডাউনলোড করুন, শেয়ার করুন, নিজে আলোকিত হোন, অন্যকে আলোকিত করুন। বাংলা ভাষায় সাহিত্য বিস্তারে শিশুদের মধ্যে অনুপ্রেরণা জাগান।

1 টি মন্তব্য

  1. শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের অদ্ভুতুড়ে সিরিজের অনেক গুলো বই পড়েছি।কিন্তু বই গুলো পড়ে প্রতিবারই এক অদ্ভুত আনন্দ পেয়েছি,প্রতিবারই মনে হই যেন এই আনন্দটুকু একেবারেই নতুন।আগে কখনও এমন আনন্দের স্বাদ অনুভব করিনি।একই বই হাজারবার পড়লেও মনে হই শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের এই আশ্চর্য সৃষ্টি 'অদ্ভুতুড়ে' সিরিজের বই গুলো কখনও পুরানো হবে না।

    উত্তরমুছুন

হোম