নিশীথিনী - হুমায়ূন আহমেদ



কাহিনী সংক্ষেপ : দেবী-র পরবর্তী পর্ব নিশীথিনী। রানুর মৃত্যুর পর নীলুর মধ্যে রানুর ছায়া পড়ে, নীলু রানুর অতিপ্রাকৃত ক্ষমতা বা ESP অর্জন করে। যে দেবী রানুর মধ্যে বাস করত সে নীলুর শরীরে ঢুকে পড়ে— যা মিসির আলিকে বিস্মিত করে, কিন্তু তিনি বিশ্বাস করেন না। তবে এ গল্প ফিরোজকে নিয়ে। ফিরোজ মোহনগঞ্জে তার বন্ধু আজমলের বাড়ি বেড়াতে গিয়ে অপ্রকৃতিস্থ হয়ে ফিরে আসে। কারণ অজ্ঞাত। হঠাৎ হঠাৎ সে হিংস্র হয়ে পড়ে। তার মাথায় খুন চেপে যায়। হিংস্র অবস্থায় তার কাছে একটি মানুষ আসে, তার সাথে কথা বলে। মিসির আলির টেপ রেকর্ডারে তার আওয়াজও ধরা পড়ে। ফিরোজের সেকেন্ড পার্সোনালিটি— ছোট চৌধুরী। হানিফা মিসির আলির বাড়ির কাজের মেয়ে। এক রাত্রে জ্বরের ঘোরে সে ইংরেজিতে কথা বলে উঠলে মিসির আলি বুঝতে পারেন সে বড় ঘরের মেয়ে। তিনি তার বন্ধু পুলিশ কমিশনার সাজ্জাদের সাহায্য চান। তিনি হানিফা আর ফিরোজ দুজনের ব্যাপারেই খোঁজ শুরু করেন। মিসির আলি ফিরোজের রহস্য উদ্ধারে মোহনগঞ্জে যান। আর এদিকে ফিরোজ একের পর এক হত্যাকান্ড ঘটাতে থাকে। নীলু বুঝতে পারে ফিরোজ এবার মিসির আলিকে হত্যা করবে। মিসির আলিকে কেন্দ্র করে নীলু আর ফিরোজ— এবার লড়াই তাদের মধ্যে; দেবী আর ছোট চৌধুরীর মধ্যে— যাদের অস্তিত্ব মিসির আলির কাছে নেই। সত্যিই কী নেই?





সতর্কতা : বইটি শিশু-কিশোররা পড়বে এইটাই আমাদের মৌলিক উদ্দেশ্য। এখানে আমার কোন ব্যক্তিগত কিংবা ব্যবসায়িক উদ্দেশ্য নেই। আমি শুধু চেষ্টা করেছি সবচেয়ে সহজ উপায়ে একটি বই শিশু-কিশোরদের মাঝে পৌঁছে দেওয়ার। যদি কোন ব্যক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠান কোন অসৎ উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে এই বইটি ডাউনলোড করে থাকেন এবং ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে প্রস্তুত ও বিপনন করে থাকেন তবে পরবর্তিতে কপিরাইট সংক্রান্ত সমস্ত দায়ভার ডাউনলোডকারীর। কোন ভাবেই সেই দায়ভার শিশু-কিশোর.অর্গ বহন করবে না। সুতরাং বই ডাউনলোড করুন, শেয়ার করুন, নিজে আলোকিত হোন, অন্যকে আলোকিত করুন। বাংলা ভাষায় সাহিত্য বিস্তারে শিশুদের মধ্যে অনুপ্রেরণা জাগান।

1 comment

  1. নক্ষত্রের রাত পেলে বেশ হত। :)

    ReplyDelete

Home